অনিয়মের মাধ্যমে কেশবপুরের হাসানপুর বাজার পরিচালনা কমিটি গঠনের চেষ্টার অভিযোগ

অনিয়মের মাধ্যমে হাসানপুর বাজার পরিচালনা কমিটি গঠনের চেষ্টা

দেশের খবর
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  

অনিয়মের মাধ্যমে কেশবপুরের হাসানপুর বাজার পরিচালনা কমিটি গঠনের চেষ্টার অভিযোগ

আব্দুল্লাহ আল ফুয়ায়।। অনিয়ম ও সেচ্ছচারিতার মাধ্যমে কেশবপুরের হাসানপুর বাজার পরিচালনা কমিটি গঠনের চেষ্টার অভিযোগ উঠেছে। অবাধ সুষ্ঠু ও নিরপেক্ষ নির্বাচনের দাবিতে ব্যবসায়ীরা নির্বাচন পরিচালনা কমিটির নিকট একাধিক লিখিত অভিযোগ দিয়েছেন। এনিয়ে হাসানপুর বাজারের ব্যবসায়ীদের মধ্যে মিশ্র প্রতিক্রিয়া সৃষ্টি হয়েছে।

জানা গেছে, একাধিক দোকানে চুরির ঘটনাকে কেন্দ্র করে কেশবপুরের হাসানপুর বাজার পরিচালনা কামিটি বিলুপ্ত করা হয়। বিলুপ্ত কমিটির নেতৃত্বে ছিলেন, সভাপতি মঞ্জুরুল আলম পলাশ, সাধারণ সম্পাদক মশিয়ার রহমান ও কোষাধ্যক্ষ সবুজ হোসেন। নতুন করে হাসানপুর বাজার পরিচালনা কমিটি গঠনের লক্ষে সর্বসম্মতিক্রমে গত ২৯ নভেম্বর আব্দুল আজিজ সরদারকে আহবায়ক করে ৭ সদস্য বিশিষ্ট একটি আহবায়ক কমিটি গঠন করা হয়।

নির্বাচন পরিচালনা কমিটি গঠন করা হলেও পূর্বের কমিটি তাদের প্রায় ৩ বছরের মেয়াদকালের হিসাব ও কাগজপত্র হস্তান্তর না করায় বর্তমান কমিটির কার্যক্রম নিয়ে প্রশ্ন উঠেছে। পূর্বের কমিটির মেয়াদকালের হিসাব ও কাগজপত্র বুঝে না নিয়েই বর্তমান আহবায়ক কমিটি পূর্নাঙ্গ কমিটি গঠনের লক্ষে নির্বাচনী তফসীল ঘোষনা করেন। ঘোষিত তফসিল অনুযায়ী তিনজন সভাপতি, ২ জন সাধারণ সম্পাদক ও ২ জন কোষাধ্যক্ষ পদে মনোনয়ন ক্রয় করেন।

এরমধ্যে সভাপতি পদে এক প্রার্থী নির্বাচন থেকে সরে যায়। অন্য দুজন সভাপতি প্রার্থী হলেন সাবেক সভাপতি মঞ্জুরুল আলম পলাশ ও ওজিয়ার রহমান । এরমধ্যে মঞ্জুরুল আলম পলাশ প্রায় ৩ বছর হাসানপুর বাজারে ব্যবসা করেন না বলে অভিযোগ উঠেছে। এছাড়াও আহবায়ক কমিটির ঘোষিত ভোটার তালিকায় অব্যবসায়ী ও নৈশ প্রহরীর খাতায় তালিকাভুক্ত নয় এরকম একাধিক ব্যক্তিকে ভোটার করা হয়েছে যা বিতর্কিত।

প্রকৃত ব্যবসায়ীদের ভোটার তালিকায় অর্ন্তভূক্ত ও অব্যবসায়ী ভোটার তালিকা থেকে বাদ দেয়া সহ মনোনয়ন বাতিলের দাবিতে ব্যবসায়ী সিরাজুল ইসলাম ও হাফিজুর রহমান শুক্রবার নির্বাচন পরিচালনা কমিটির নিকট লিখিত অভিযোগ করেছেন।
হাসানপুর বাজারের ব্যবসায়ী মনিরুজ্জামান মিলন বলেন, একাধিক প্রকৃত ব্যবসায়ীদের বাদ দিয়ে ভোটার তালিকা করা হয়েছে। বাজারে ব্যবসা প্রতিষ্ঠান নেই এরকম ব্যক্তি গুরুত্বপূর্ণ পদে প্রতিদ্বন্দিতা করছেন।প্রকৃত ব্যবসায়ীদের ভোটার তালিকায় অন্তভূক্ত ও বাজারে ব্যবসা করেন না এরকম ব্যক্তিদের মনোনয়ন বাতিল করে সুষ্ঠু নির্বাচনের দাবি জানান তিনি।

এবিষয়ে বিলুপ্ত কমিটির সভাপতি মঞ্জুরুল আলম পলাশ বলেন, একটি পক্ষের ইন্ধনে হুট করে কমিটি বিলুপ্ত করা হয়েছে। বাজার পরিচালা কমিটির কোন আয় ব্যায়ের খাত নেই যে কারনে হিসাব দেয়ার কোনো সুযোগ নেই। নতুন কমিটি গঠনের নির্বাচনে তিনি সভাপতি পদে নির্বাচন করতে মনোনয়ন জমা দিয়েছেন। নির্বাচনে অংশগ্রহন করে তিনি হুমকির মধ্যে রয়েছেন। প্রতিপক্ষরা তাদের নিশ্চিত পরাজয় বুঝতে পেয়ে আমাকে বিভিন্নভাবে হুমকি প্রদান অব্যহত রেখেছে। বাজার পরিচালনার জন্য প্রকৃত ব্যবসায়ীদের নিয়ে কমিটি গঠনের দাবি জানান তিনি। তিনি আরো বলেন, হাসানপুর বাজারে তার প্রায় ১০ টি দোকান ভাড়া দেয়া রয়েছে এবং তিনি নিজেও একজন সার, কীটনাশক ও বীজ ক্রয় বিক্রয়ের ব্যবসা করেন। প্রতিপক্ষরা বানোয়াট অভিযোগ করে হয়রানির চেষ্টায় লিপ্ত রয়েছে। অপর সভাপতি প্রার্থী ওজিয়ার রহমান প্রকৃত ব্যবসায়ীদের নিয়ে কমিটি গঠনের দাবি জানান।

নির্বাচন পরিচালনা কমিটির সভাপতি আব্দুল আজিজ বলেন, পূর্বের কমিটি বিলুপ্ত করে আমাকে আহবায়ক করে একটি কমিটি গঠন করা হয়েছে। নতুন কমিটি ১৭ ডিসেম্বর নির্বাচনী তফসিল ঘোষনা করে খসড়া ও চুড়ান্ত ভোটার তালিকা প্রকাশ করেছে। আগামী ১০ জানুয়ারী নির্বাচন অনুষ্ঠিত হবে। যেহেতু প্রার্থীরা মনোনয়ন ক্রয় করে জমা দিয়েছেন। যাচাই বাছাই ও শেষ হয়েছে। এতদিন পরে গত শুক্রবার রাতে একজন ব্যবসায়ীর লিখিত অভিযোগ পেয়েছি। নির্বাচনের সকল প্রস্তুতি সম্পন্ন হয়েছে। যথাসময়ে অভিযোগ না দেয়ায় এবিষয়ে আমরা কিছু করতে পারছিনা । সুষ্ঠু নির্বাচনের স্বার্থে তিনি সকলের সহযোগিতা কামনা করেন। ভিজিট করুন

চেতনানাশক দ্রব্য খাওয়ায়ে স্বর্ণালংকার, নগদ টাকাসহ মালামাল লুট

1 thought on “অনিয়মের মাধ্যমে হাসানপুর বাজার পরিচালনা কমিটি গঠনের চেষ্টা

Comments are closed.