অবনীর শাবককে ছাড়া হল জঞ্জলে

অবনীর শাবককে ছাড়া হল জঞ্জলে

আন্তর্জাতিক গ্যালারী
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  

অবনীর শাবককে ছাড়া হল জঞ্জলে। মহারাষ্ট্রের মানুষখেকো বাঘিনি অবনীকে বছর দুই আগে গুলি করে মারা হয়েছিল। তার শাবককে এ বার ছাড়া হল মহারাষ্ট্রের নাগপুর জেলার পেঞ্চ ব্যাঘ্র অভয়ারণ্যে।

২০১৮ সালের নভেম্বর মাসে মহারাষ্ট্রের যবতমল জেলায় গুলি করা হয়েছিল অবনীকে। বন দফতরের আধিকারিকেরা জানিয়েছিলেন, অবনী মানুষখেকো হয়ে যাওয়ার পরে কমপক্ষে ১৩ জনের প্রাণ নিয়েছিল। তার পরেই তাকে গুলি করে মারার সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়।

অবনীর শাবক তখন ছিল খুবই ছোট। অবনীর মৃত্যুর এক মাস পরে, ২০১৮ সালের ডিসেম্বরে তার শাবককে উদ্ধার করা হয়। তার পর থেকে পেঞ্চ অভয়ারণ্যের ভিতরেই প্রায় ৫.১১ হেক্টর এলাকা জুড়ে থাকা একটি সংরক্ষিত জায়গায় এত দিন তাকে আলাদা করে রাখা হয়েছিল। সেই বাঘিনি এখন পূর্ণবয়স্ক। বয়স ৩ বছর ২ মাস। নাম পিটিআরএফ-৮৪।

পেঞ্চ অভয়ারণ্যের শীর্ষ আধিকারিকেরা জানিয়েছেন, গতকাল সেই বাঘিনিকে জঙ্গলে ছাড়া হয়। তার আগে অবনীর
এই সন্তানকে জাতীয় ব্যাঘ্র অভয়ারণ্য কর্তৃপক্ষের যাবতীয় নিয়ম মেনে বন্য পরিবেশে রাখার প্রশিক্ষণও দেওয়া হয়েছে। এর পরে বিশেষজ্ঞদের পরামর্শ মেনেই তাকে জঙ্গলে ছাড়ার সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়। জঙ্গলে সে কেমন আচরণ করছে, সেটা আপাতত পর্যবেক্ষণ করা হবে বলে জানিয়েছেন পেঞ্চের আধিকারিকেরা।

জঙ্গলে ছাড়ার আগে ‘ওয়াইল্ডলাইফ ইনস্টিটিউট অব ইন্ডিয়া’র বৈজ্ঞানিকদের সাহায্যে এই বাঘিনির গলায় রেডিয়ো কলার পরানো হয়েছে। যাতে তার গতিবিধি নজরে রাখা যায়। তা ছাড়া স্যাটেলাইটের মাধ্যমেও এই বাঘিনির আচরণ ও গতিবিধি পর্যবেক্ষণে রাখা হবে বলে বন আধিকারিকেরা জানিয়েছেন।-আনন্দবাজার পত্রিকা।