ইউপি চেয়ারম্যানের হুমকি সাংবাদিক পেটানোর

ইউপি চেয়ারম্যানের হুমকি সাংবাদিক পেটানোর

দেশের খবর
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  

ইউপি চেয়ারম্যানের হুমকি সাংবাদিক পেটানোর

বরিশালের বাকেরগঞ্জের দুর্গাপাশা ইউনিয়নের ইউপি সদস্য রফিকুল ইসলামের দুর্নীতি নিয়ে টেলিভিশনে ও প্রিন্ট মিডিয়ায় সংবাদ প্রকাশ করায় সাংবাদিকদের পেটানোর হুমকি দেয়ার অভিযোগ উঠেছে দুর্গাপাশা ইউপি চেয়ারম্যান আবুল বাশার শিকদারের বিরুদ্ধে।

১ ডিসেম্বর মঙ্গলবার পৌরসভা নির্বাচনের প্রার্থীদের মনোনয়নপত্র দাখিলের সময় এশিয়ান টিভির বাকেরগঞ্জ প্রতিনিধি উত্তম কুমার ও তার সঙ্গে থাকা দৈনিক মানবজমিন পত্রিকার প্রতিনিধি জাকির জমাদ্দারকে অকথ্য ভাষায় গালাগাল করে প্রকাশ্যে এ হুমকি দেয় ওই চেয়ারম্যান।

জানা যায়, উপজেলার দুর্গাপাশা ইউনিয়নের মেম্বার রফিকুল ইসলাম তার ভাই নজরুল ইসলাম খান ও বোন সালমা বেগমের নামে ২টি প্রজেক্টে তাদের নাম দিয়ে ঘর নির্মাণ করে মেম্বার রফিক নিজেই ওই ঘরে বসবাস করছেন। নির্মাণকৃত ঘর দুটির ঠিকাদার ছিলেন ইউপি চেয়ারম্যান আবুল বাশার শিকদার। এ দুর্নীতি নিয়ে এশিয়ান টিভিতে সংবাদ প্রকাশ করায় দুই সাংবাদিককে দেখে নেয়ার প্রকাশ্য হুমকি দেয়।

এশিয়ান টিভির বাকেরগঞ্জ প্রতিনিধি উত্তম কুমার জানান, দুর্গাপাশা ইউনিয়ন চেয়ারম্যান আবুল বাসার সিকদারের সহায়তায় মেম্বার রফিকুল সরকারি ঘর নিজেদের নামে বরাদ্দ নিয়ে ওই ঘরে তিনি নিজেই বসবাস করেন। এ নিয়ে সংবাদ করায় মঙ্গলবার বেলা ১২টায় পৌরসভা নির্বাচনের প্রার্থীদের মনোনয়নপত্র দাখিলের সময় আমার সঙ্গে থাকা দৈনিক মানবজমিন পত্রিকার প্রতিনিধি জাকির জমাদ্দার ও আমাকে শতাধিক ব্যক্তি ও একাধিক সাংবাদিকের সামনে প্রকাশ্য ইউপি চেয়ারম্যান আবুল বাশার শিকদার দেখে নেয়ার হুমকি দেয়।

দৈনিক মানবজমিন পত্রিকার প্রতিনিধি জাকির জমাদ্দার বলেন, চেয়ারম্যান আবুল বাসার সিকদার তার পালিত ক্যাডার বাহিনী দিয়ে মারধরের হুমকি দেন। এছাড়া আমরা কীভাবে বাকেরগঞ্জ উপজেলায় সাংবাদিকতা করি তা দেখে নেবেন বলেও হুমকি ও গালাগাল করেন তিনি।

এ ঘটনায় বাকেরগঞ্জ উপজেলার সব সাংবাদিকের মধ্যে তীব্র ক্ষোভের সৃষ্টি হয়েছে। বাকেরগঞ্জ প্রেস ক্লাব, রিপোর্টার্স ইউনিটি, মফস্বল সাংবাদিক ফোরাম, সাংবাদিক ক্লাব, ক্রাইম রিপোর্টার্স সোসাইটি, টেলিভিশন সাংবাদিক অ্যাসোসিয়েশন, অনলাইন সাংবাদিক পরিষদের সভাপতি ও সাধারণ সম্পাদকসহ নেতারা তীব্র নিন্দা জানিয়েছেন।

এ বিষয়ে জানতে চাইলে ইউপি চেয়ারম্যান আবুল বাসার সিকদার জানান, আমার ইউনিয়নের ৪নং ওয়ার্ডের মেম্বার রফিকুল ইসলামের ভাই নজরুল ইসলাম খান ও তার বোন সালমা বেগমের নামে ২টি প্রজেক্টের ঘর বরাদ্দ দেই। ওই ঘরে তারাই থাকেন। এখন বলেন চেয়ারম্যানের কী গরিব আত্মীয়স্বজন থাকতে পারে না? তারপরও তারা (সাংবাদিকরা) সংবাদ প্রকাশ করছে- এ নিয়ে তো আমার কিছু করার নেই।

হুমকির বিষয়ে জানতে চাইলে তিনি বলেন, আমি মোবাইলে নিউজ না করার জন্য বললাম তারপরও করলি (নিউজ)। এছাড়া তো আর কিছু তাদের বলিনি।

বরিশাল জেলা প্রশাসক এসএম অজিয়র রহমান জানান, এ বিষয়ে আমার কাছে কোনো অভিযোগ আসেনি। এলে তদন্ত করে ব্যবস্থা নেয়া হবে। -খবর ইত্তেফাক।  ভিজিট করুন

সাংবাদিকের বিরুদ্ধে মিছিল, প্রেসক্লাবের নিন্দা ও আল্টিমেটাম

 

1 thought on “ইউপি চেয়ারম্যানের হুমকি সাংবাদিক পেটানোর

Comments are closed.