কেশবপুরে শিক্ষার্থীদের মাদ্রাসায় আসতে বাধা দেয়ায় সভাপতির জেল

ফিচার
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  

নিজস্ব সংবাদদাতা, কেশবপুর, ২৩ জুলাই।।
মঙ্গলবার বিকেলে কেশবপুরের শ্রীফলা কালিয়ারই দাখিল মাদ্রাসার ম্যানেজিং কমিটির সভাপতি আওয়ামীলীগ নেতা আব্দুল খালেককে ৭দিনের কারাদন্ড প্রদান করা হয়েছে। মাদ্রাসার ম্যানেজিং কমিটি গঠন নিয়ে বিরোধে গত ৪ দিন ধরে শিক্ষার্থীদের মাদ্রাসায় আসা বন্ধ করে দেওয়ায় উপজেলা নির্বাহী অফিসার ও নির্বাহী ম্যাজিষ্ট্রেট মিজানূর রহমান এক ভ্রাম্যমান আদালত বসিয়ে খালেককে এই সাজা প্রদান করেছেন।
উপজেলা নির্বাহী অফিসার মিজানূর রহমান জানান, গত চারদিন ধরে আব্দুল খালেক শিক্ষার্থীদের মাদ্রাসায় যেতে রাস্তায় ও বাড়িতে বাড়িতে গিয়ে বাধা দেন। সোমবার সরেজমিনে গিয়ে সত্যতা পেয়ে মঙ্গলবার তাকে আটক করে ৭দিনের জেল প্রদান করা হয়।
এলাকাবাসি জানায়, ১৯৯৭ সালে উপজেলার শ্রীফলা ও কালিয়ারই গ্রামবাসীর উদ্যোগে মাদ্রাসাটি স্থাপিত হয়। চলতি বছর ম্যানেজিং কমিটির মেয়াদ শেষে হলে মাদ্রাসার সুপার কাউকে কিছু না জানিয়ে অতি গোপনে নির্বাচনী তফশীল ঘোষণা করেন। গত ১৬ জুলাই ছিল মনোনয়নপত্র জমা দানের শেষ দিন। মাদ্রাসার সুপার নিজের পকেটের টাকা খরচ করে কম্পিউটার শিক্ষক রফিকুল ইসলাম উজ্জ্বলকে দিয়ে অভিভাবকদের নামে সদস্য ফরম ক্রয় করান। অনেকে এলাকায় না থাকার পরও প্রস্তাবকারী ও সমর্থনকারীর স্বাক্ষরও জাল করে মনোনয়নপত্র জমা দেয়া হয়েছে। 
ম্যানেজিং কমিটির অভিভাবক সদস্য ওলিয়ার রহমান বলেন, ম্যানেজিং কমিটির সভাপতি আব্দুল খালেক শ্রীফলা ওয়ার্ড আওয়ামীলীগের সাধারণ সম্পাদক। মাদ্রাসার সুপার মাওলানা রবিউল ইসলাম বলেন, অভিভাবক সদস্য পদে ১৬ জন অভিভাবক মনোনয়নপত্র জমা দিয়েছেন। বর্তমান সভাপতি তার পছন্দের ২ জন দাবি করায় তা দেওয়া হয়েছে। এরপরও শিক্ষার্থীদের মাদ্রাসায় আসতে বঁাধা দেওয়া হচ্ছে। বিষয়টি ঊধ্বর্তন কতর্ৃপক্ষকে জানানো হয়। 
উপজেলা মাধ্যমিক শিক্ষা কর্মকর্তা রবিউল ইসলাম বলেন, কমিটির সভাপতি বাড়ি বাড়ি যেয়ে শিক্ষার্থীদের মাদ্রাসায় আসা বন্ধ করে দিয়েছে।
কবির হোসেন
কেশবপুর
০১৭১১-২৫০৩৫৬।

Leave a Reply

Your email address will not be published.