জলিল স্মরণী শীল্ড ফুটবল

খেলা কলাম ও ফিচার
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  

 

সাজেদ রহমান।।

এটা ৩৭ বছর আগের ছবি।

শার্শার পাকশিয়া হাই স্কুল মাঠে নিয়মিত অনুষ্ঠিত হতো জলিল স্মরণী শীল্ড ফুটবল। ছবিটি ৩৭ বছর আগের ১৯৮৩ সালের ১৪ জুনের।
ওই দিন পাকশিয়া হাই স্কুল মাঠে জলিল স্মরণী ফুটবল খেলায় ফাইনালে চৌগাছার নারায়ণপুর ফুটবল ক্লাব ঝিকরগাছার ডহর মাগুরা রওশন একাদশকে ৩-১ গোলে হারিয়ে শিরোপা অর্জন করে।
ছবিতে যশোরের তৎকালীন জেলা প্রশাসক এমএ আউয়াল ট্রফি তুলে দিচ্ছেন নারায়ণপুর ফুটবল ক্লাবের অধিনায়ক আবদুল মালেকের হাতে।
জেলা প্রশাসকের বাম পাশে ডিহি ইউনিয়নের প্রাক্তন চেয়ারম্যান মুক্তিযোদ্ধা খলিলুর রহমান, জেলা প্রশাসকের পিছনে শহীদ সাংবাদিক শামছুর রহমান।
সে সময় দৈনিক বাংলায় এ খেলা নিয়ে একটি রিপোর্ট হয়েছিল। রিপোর্টে বলা হয়, ‘‘যশোরের প্রত্যন্ত গ্রামাঞ্চলে ফুটবল খেলার প্রসার, প্রশিক্ষণ ও খেলোয়াড় তৈরিতে জলিল স্মরণী শীল্ড ফুটবল টুর্নামেন্ট অনন্য অবদান রাখছে। বিগত ৫ বছর যাবত তারা আয়োজন করে আসছে ফুটবল টুর্নামেন্টের। এতে অংশ গ্রহন করছে যশোরের ৫টি থানার গ্রামঞ্চলের বহুটিম। প্রাক্তন আওয়ামী লীগ নেতা মরহুম এ্যাডভোকেট আবদুল জলিলের স্মরণে এ টুর্নামেন্ট ১৯৭৮ সাল থেকে শার্শা থানার পাকশিয়াতে শুরু হয়।
যৌথভাবে টুর্নামেন্টের আয়োজন করে থাকে পাকশিয়া হাই স্কুল ও ডিহি ইউনিয়ন পাবলিক লাইব্রেরি। পাকশিয়া জেলা সদর থেকে প্রায় ৩০ মাইল দুরে। গ্রামাঞ্চলের টিম গুলো ২০/২৫ মাইল পায়ে হেঁটে এ খেলায় অংশ গ্রহন করে। অনুষ্ঠানে সভাপতিত্ব করেন অধ্যাপক আমিরুল আলম খান।
জলিল স্মরণী শীল্ড ফুটবল টুর্নামেন্টে বিগত ৫ বছরে বিজয়ী ও বিজিত দল গুলো হলো: ১৯৭৮-৮৯ ডহর মাগুরা রওশন একাদশ(বিজয়ী), পাকশিয়া এসটিপি যুব সংঘ(বিজিত), ১৯৭৯-৮০ ডহর মাগুরা রওশন একাদশ(বিজয়ী), ডিহি ইউনিয়ন একাদশ(বিজিত), ১৯৮০-৮১ বালিয়া ইস্রাফিল একাদশ(বিজয়ী), গঙ্গানন্দপুর ফুটবল ক্লাব(বিজিত), ১৯৮১-৮২ গঙ্গানন্দপুর ফুটবল ক্লাব(বিজয়ী), বালিয়া ইস্রাফিল একাদশ(বিজিত), ১৯৮২-৮৩ নারায়ণপুর ফুটবল ক্লাব(বিজয়ী), ডহর মাগুরা রওশন একাদশ(বিজিত)। ভিজিট করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published.