পৌরসভা নির্বাচনী এলাকায় দফায়-দফায় সংঘাতে আহত ১০

নির্বাচনী এলাকায় দফায়-দফায় সংঘর্ষে আহত ১০

জাতীয় খবর দেশের খবর
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  

পৌরসভা নির্বাচনী এলাকায় মঙ্গলবার সন্ধা থেকে দফায়-দফায় সংঘর্ষের ঘটনা ঘটেছে বিএনপি ও আওয়ামীগ কর্মীদের মধ্যে। এতে উভয় দলের প্রায় ১০ জন আহত হয়েছে। আহতদের মধ্যে যুবলীগের কর্মী তৌহিদুল ইসলামকে কেশবপুর হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে। পৌর এলাকায় পুলিশী টহল জোরদার করা হয়েছে।

মঙ্গলবার সন্ধ্যয় পৌর সভার সাবদিয়া গ্রামে ধানের শীষ প্রতিকির পথসভায় নৌকা প্রতিকির কর্মীদের হামলায় প্রথমে দু‘ব্যক্তি আহত হয়। এসময় পুলিশের তৎপরতায় বড় ধরনের সংঘাত হতে পারেনি।

ধানের শীষ প্রতিকির মুখপাত্র অধ্যক্ষ জুলপিকার আলী জানান, ২৪ ঘন্টা পূর্বে থানায় পথসভার কথা জানিয়ে আবেদন করা হয়। সেই আবেদনের সূত্র ধরে পৌরসভার সাবদিয়া গ্রামে পথসভা চলছিল। ঠিক ওই মুহুর্তে নৌকা প্রতিকির কতিপয় কর্মী সমাবেশের পিছনে প্রথমে মোকাররম হোসেন নামে এক কর্মীকে এলোপাতাড়িভাবে মারপিট করতে থাকে।

হামলাকারীরা দ্রুত ঘটনাস্থল ত্যাগ করে পরমূহুর্তেই আরো লোকজন জড়ো হয়ে পূনরায় সন্ধার দিকে পথসভায় চড়াও হয়। এসময় ধানের শীষ প্রতিকের প্রার্থী আলহাজ্জ আব্দুস সামাদ বিশ্বাস সহ লোকজন সভস্থলের পার্শ্বে মসজিদে মাগরিবের নামায আদায় করছিলেন। নৌকার কর্মীরা সেখানে হামলা করে আব্দুর রাজ্জাক ও নজরুল ইসলামকে মারপিট করে আহত করে। হামলাকারীরা বেপরোয়া ত্রাস সৃষ্টির চেষ্টা করলে পুলিশের বাধার মুখে বড়ধরনের কোন ঘটনা ঘটাতে না পারলেও তারা মিছিল সহ পৌর এলাকা জুড়ে ২০/২৫টি মটর সাইকেলে শোডাউন দিতে থাকে। এরপর তারা আলতাপোল ও বায়সা গ্রামে সংঘাতের সৃষ্টি করে।

নৌকার প্রতিকের প্রধান কার্যালয়ের দায়িত্বশীল ব্যক্তি মদন সাহা অপু জানান, নৌকার কর্মীরা নির্বাচনী কার্য্যক্রম করা কালে সাবদিয়া গ্রামে গেলে তাদের কর্মী তাহের, শিপন, মাসুম ও ফিরোজের উপর হামলা চালিয়ে আহত করে ধানের শীষ প্রতিকের কর্মীরা ।

এরপর একই ভাবে নির্বাচনী কার্যক্রম করা কালে ধানেরশীষের কর্মীদের হামলায় আলতাপোল গ্রামে নৌকার কর্মী যুবলীগ কর্মী তৌহিদকে মারপীট করে আহত করলে তাকে হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। -আব্দুল হাই সিদ্দিকী।