পাকিস্তানি বাহিনী যশোরের বিভিন্ন স্থানে মানুষকে নির্যাতন চালায়

মুক্তিযুদ্ধ কলাম ও ফিচার
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  

 

 

 

 

 

 

 

সাজেদ রহমান।। স্বাধীনতা যুদ্ধের পুরো সময় জুড়ে পাকিস্তানি বাহিনী যশোরের বিভিন্ন স্থানে মানুষকে নির্যাতন চালায়। চৌগাছাতে ডাকবাংলো ও তৎসংলগ্ন স্কুল ঘরগুলোতে নির্যাতন ও খুন করা হতো।

ডাকবাংলোর পিছনে ২০-২৫টা গণকবর ছিলো। এসব গণকবরে মৃত-অর্ধমৃত মানুষদেরকে মাটিচাপা দিতো।
এছাড়া বন্দিদের প্রথমে বেয়নেট চার্জ করে অর্ধমৃত হলে চটের বস্তায় জীবিত অবস্থায় ভরে বস্তার মুখ বন্ধ করে নিকটবর্তী কপোতাক্ষ নদে ফেলে দিত। এই নদের উপর একটি ব্রিজ ছিলো।
স্থানীয় এবং ভারতগামী অসংখ্য মানুষকে পাকিরা এই ব্রিজের উপর দাঁড় করিয়ে বেয়নেট চার্জ করে নদেতে ফেলে দিত। পাক বাহিনীর ঘাঁটি ছিল এটি।
এখান থেকে পালিয়ে যাবার আগে পাকি বাহিনী বোমা হামলা চালিয়ে ক্ষতিগ্রস্থ করে চৌগার ডাকবাংলোটির পশ্চিম পাশের দেয়াল। — ছবি: মুক্তিযোদ্ধা মোঃ সফি।

1 thought on “পাকিস্তানি বাহিনী যশোরের বিভিন্ন স্থানে মানুষকে নির্যাতন চালায়

Leave a Reply

Your email address will not be published.