প্রমিলা ক্রিকেটে জাতীয় পর্যায়ে ডাক পেয়েছে কেশবপুরের রিয়া

প্রমিলা ক্রিকেটে জাতীয় পর্যায়ে ডাক পেয়েছে কেশবপুরের রিয়া

খেলা জাতীয় খবর
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  

প্রমিলা ক্রিকেটে জাতীয় পর্যায়ে ডাক পেয়েছে কেশবপুরের রিয়া

প্রমিলা ক্রিকেট অনুর্ধ্ব ১৭ টিমে জাতীয় পর্যায়ে ১ম গ্রুপে ডাক পেয়েছে কেশবপুরের মেয়ে জান্নাতুল ফেরদৌসী রিয়া। বাংলাদেশ ক্রীড়া শিক্ষা প্রতিষ্ঠান বিকেএসপিতে বৃহস্পতিবার থেকে ১ম গ্রুপের অনুশীলন শুরু হচ্ছে।

ওই অনুশীলন ক্যাম্পে অংশ নিয়েছে নিজের প্রচেষ্টা ক্রিকেটার হয়ে উঠা কেশবপুরের রিয়া। এ ক্যাম্পে প্রশিক্ষনের মাধ্যমে জাতীয় পর্যায়ে অবদান রেখে একদিন কেশবপুরের মুখ উজ্জ্বল করবেন রিয়া।

যশোরের কেশবপুর উপজেলার মজিদপুর গ্রামের রেজাউল ইসলামের মেয়ে রিয়া। শিশুকাল থেকেই তার খেলাধুলার প্রতি মনোযোগ ছিল। প্রাথমিক বিদ্যালয়ে পড়াকালীন ফুটবল ও ক্রিকেট খেলায় সমান পারদর্শী ছিল। মাধ্যমিক পর্যায়ে এসে ছোট ভাইদের সাথে খেলতে খেলতে ক্রিকেটকেই বেছে নেয় সে।

গ্রামে খেলার মাঠ না থাকায় মহল্লার অলিতে-গলিতে ছোট ভাইদের সাথে পড়ে থাকতেন বল আর ব্যাট নিয়ে। ধীরে ধীরে ব্যাটস ম্যান হিসেবে ভালো পারদর্শী হয়ে ওঠে। গত বছরের ১৭ ডিসেম্বর খুলনা বিকেএসপি মাঠে প্রমিলা ক্রিকেট অনুর্ধ্ব ১৭ টিমের বাছাই পর্বে অংশ নিয়ে (প্রমিলা-২০২০-সি-৪৬৫) ১ম গ্রুপের জন্য মনোনীত হয়েছে জান্নাতুল ফেরদৌসী রিয়া।

কেশবপুর পাইলট মাধ্যমিক বালিকা বিদ্যালয়ের দশম শ্রেণীর ছাত্রী রিয়া। ২০২১ সালের এসএসসি পরীক্ষার্থী সে। লেখাপড়ার পাশাপাশি প্রমিলা ক্রিকেটে একজন দক্ষ ব্যাটস ম্যান হিসেবে সে নিজেকে গড়ে তুলতে চায়। এ জন্য সকলের কাছে দোয়া প্রার্থী রিয়া।

পেশায় রাজমিস্ত্রি রেজাউল ইসলামের অভাব-অনটনের সংসারের মধ্যে রিয়া অনুশীলনের জন্য পায়নি কোন প্রশিক্ষক বা নেয়নি কোন ক্লাবের প্রশিক্ষণ।

গ্রামের মধ্যে একমাত্র মেয়ে ছেলেদের সাথে প্রাকটিস কালে সমালোচনার মধ্যে সহপাঠী আর পিতা-মাতাই তাকে সাহস যুগিয়েছে। আর তার নিকট প্রতিবেশী দাদু সাংবাদিক মোতাহার হোসাইনের অনুপ্রেরণা ও সহযোগিতায় এগিয়ে চলা রিয়া আজ তার স্বপ্ন পূরণের ধাপ শুরু করতে চলেছে। ভিজিট করুন

বাংলাদেশও সফলভাবে জঙ্গিবাদ প্রতিহত করেছে