‘বদি’ চরিত্রের অভিনেতা আবদুল কাদের আর নেই

‘বদি’ চরিত্রের অভিনেতা আবদুল কাদের আর নেই

জাতীয় খবর বিনোদন
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  

দেশের জনপ্রিয় অভিনেতা আবদুল কাদের শনিবার (২৬ ডিসেম্বর) সকাল ৮টা ২০ মিনিটে রাজধানীর এভারকেয়ার হাসপাতালে শেষ নিঃশ্বাস ত্যাগ করেন তিনি। (ইন্নালিল্লাহি … রাজিউন)।  গণমাধ্যমকে বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন তার পুুত্রবধূ জাহিদা ইসলাম জেমি। কান্নাজড়িত কণ্ঠে জেমি বলেন, ‘বাবা আর নেই। তার জন্য দোয়া করবেন।’

প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা জনপ্রিয় অভিনেতা আব্দুল কাদেরের মৃত্যুতে আজ শনিবার (২৬ ডিসেম্বর) গভীর শোক ও দুঃখ প্রকাশ করেনছেন। এক শোকবার্তায় প্রধানমন্ত্রী বলেন, সাবলীল ও স্বতঃস্ফূর্ত অভিনয়ের মধ্য দিয়ে তিনি (আব্দুল কাদের) মানুষের হৃদয়ে বেঁচে থাকবেন। তিনি মরহুমের আত্মার মাগফিরাত কামনা করেন এবং তাঁর শোকসন্তপ্ত পরিবারের সদস্যদের প্রতি গভীর সমবেদনা জানান।

 

 

ক্যানসারের কাছে হার মানলেন জনপ্রিয় অভিনেতা আবদুল কাদের। প্যানক্রিয়াসের ক্যানসারে ভুগছিলেন আবদুল কাদের। উন্নত চিকিৎসার জন্য ৮ ডিসেম্বর চেন্নাইতে নেওয়া হয় আবদুল কাদেরকে। সেখানকার হাসপাতালে পরীক্ষার পর ১৫ ডিসেম্বর তার ক্যানসার ধরা পড়ে।

চিকিৎসকেরা জানিয়েছিলেন, তার অবস্থা সংকটাপন্ন, ক্যানসার সারা শরীরে ছড়িয়ে পড়েছে। শারীরিক দুর্বলতার কারণে তাকে কেমোথেরাপি দেওয়া হয়নি। গত রবিবার সন্ধ্যায় অভিনেতাকে ঢাকায় আনা হয়। অবশেষে সব চিকিৎসার ঊর্ধ্বে চলে গেলেন তিনি। নিভে গেল দারুণ উচ্ছ্বাসে ভরা এক প্রাণ।

আবদুল কাদেরের জন্ম মুন্সীগঞ্জের টঙ্গিবাড়ী থানার সোনারং গ্রামে। তার বাবা মরহুম আবদুল জলিল। মা মরহুমা আনোয়ারা খাতুন। স্ত্রী খাইরুননেছা কাদেরের সঙ্গে সুখের দাম্পত্যে তিনি এক ছেলে ও এক মেয়ের জনক। রেখে গেছেন অসংখ্য গুণগ্রাহী ও বন্ধু স্বজন।

হুমায়ূন আহমেদের লেখা ‘কোথাও কেউ নেই’ ধারাবাহিক নাটকে ‘বদি’ চরিত্রে অভিনয় করে তুমুল জনপ্রিয়তা পান। এছাড়াও তিনি হুমায়ূন আহমেদের ‘নক্ষত্রের রাত’ নাটকে দুলাভাই চরিত্রেও দারুণ প্রশংসিত হন।

বহু একক ও ধারাবাহিক নাটকের পাশাপাশি তাকে নিয়মিত দেখা গেছে বিটিভির জনপ্রিয় ম্যাগাজিন অনুষ্ঠান ‘ইত্যাদি’-তে। ‘রং নাম্বার’র মতো সিনেমাতেও অভিনয়ের মুন্সিয়ানা দেখিয়েছেন আবদুল কাদের। ভিজিট করুন

গণতন্ত্রের বিজয় দিবস পালন করতে যাচ্ছে আওয়ামী লীগ