বাঙালি রেনেসাঁর শ্রেষ্ট কবি মুধুুসূদন দত্ত

বাঙালি রেনেসাঁর শ্রেষ্ট কবি মুধুুসূদন দত্ত

জাতীয় খবর সাহিত্য
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  

মহাকবি মাইকেল মধুসূদন দত্তের ১৯৭ তম জন্মবার্ষিকী উপলক্ষে আলোচনা সভায় প্রধান অতিথির বক্তব্যে যশোরের জেলা প্রশাসক তমিজুল ইসলাম খান বলেন, আধুনিক বাংলা সাহিত্যের প্রথম প্রবর্তক মহাকবি মাইকেল মধুসূদন দত্ত। বাঙালি রেনেসাঁর শ্রেষ্ট কবি মুধুুসূদন দত্ত।

মহাকবির জন্মজয়ন্তি উপলক্ষে কেশবপুরের সাগরদাঁড়িতে সোমবার মধুমেলার উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি এসব কথা বলেন। তারই ফলে বাঙালি সংস্কৃতিতে স্বদেশ প্রেম ও জাতীয়তাবোধের বিকাশ ঘটেছে। বিশ্ব সাহিত্যে বাংলা ভাষার যোগাযোগ ঘটিয়েছেন তিনি। তাঁর সাহিত্যে কি কবিতায় কি নাটকে বাঙালী জাতীয়তাবোধকে জাগ্রত করেছেন।

কোভিড-১৯ মহামারির কারনে এবছর সীমিত আকারে স্বাস্থ্যবিধি মেনে উদ্বোধন অনুষ্ঠানের মধ্য দিয়ে শেষ হয় জন্মবার্ষিকী পালন।

মধুমঞ্চে আলোচনা অনুষ্ঠানে সভপতিত্ব করেন কেশবপুর উপজেলা নির্বাহী অফিসার এম এম আরাফাত হোসেন। আলোচনা সভায় বিশেষ অতিথির বক্তৃতা করেন, উপজেলা চেয়ারম্যান বীর মুক্তিযোদ্ধা কাজী রফিকুল ইসলাম, উপজেলা আওয়ামীলীগের সভাপতি এস এম রুহুল আমিন, কেশবপুর থানার অফিসার ইনচার্জ জসীম উদ্দীন,মধু গবেষক কবি খসরু পারভেজ, প্রভাষক কানাইলাল ভট্টাচার্য প্রমুখ।

অনুষ্ঠান সঞ্চালনায় ছিলেন মাসুদুর রহমান ও উজ্জ্বল ব্যানার্জী। আলোচনা শেষে ওই মঞ্চে যশোর ও কেশবপুরের শিল্পিরা মনোজ্ঞ সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠান পরিবেশনা করেন। আলোচনা সভার পূর্বে মধুপল্লীতে মাইকেল মধুসূধন দত্তের আবক্ষ মূর্তিতে শ্রদ্ধাজ্ঞলি জ্ঞাপন করেন জেলা প্রশাসন, উপজেলা প্রশাসন, কেশবপুর প্রেসক্লাব, সম্মিলিত সাংস্কৃতিক জোট, চারুপীট আর্ট স্কৃলসহ বিভিন্ন সাংস্কৃতিক সংগঠনের নেতৃবৃন্দ। আব্দুল্লাহ আল ফুয়াদ। ভিজিট করুন

সাংবাদিকরা বিভিন্ন সময়ে বিভিন্ন বিষয়ে সচেতনতা সৃষ্টিতে ভূমিকা রাখে