বাড়িতে হামলা করে ৪জনকে মারপিট

বাড়িতে হামলা করে ৪জনকে মারপিট

জাতীয় খবর
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  

বাড়িতে হামলা করে ৪জনকে মারপিট

জমি সংক্রান্ত বিরোধের জের ধরে কেশবপুরে প্রতিপক্ষের হামলায় ৪ জন মারাত্মক আহত হয়েছেন। বাড়িতে হামলা করে মারপিটে আহতরা উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে চিকিৎসাধীন রয়েছেন। এ ঘটনায় শনিবার সন্ধ্যায় জিয়াউর রহমান বাদি হয়ে কেশবপুর থানায় অভিযোগ দায়ের করেছেন।

অভিযোগে বলা হয়েছে, উপজেলার সাতবাড়িয়া উত্তরপাড়া গ্রামের আবুল করিম গাইনের ছেলে জিয়াউর রহমানের পরিবারের সাথে একই গ্রামের মৃত নওশের আলী মোড়লের ছেলে মোহাম্মদ আলী ও আব্দুল আজিজ, মৃত ইমান আলীর ছেলে মাহবুর রহমান, রুহুল আমিনের ছেলে সেলিম হোসেনের ৩২ ভিটা বাড়ির জমি নিয়ে বিরোধ চলে আসছিল।

বিরোধপূর্ণ জমি নিয়ে আদালতে মামলাও চলছে। উপরোক্ত ব্যক্তিরা গত ৪ ডিসেম্বর তাদের বসতবাড়িতে হামলা করে মারপিট, ক্ষয়ক্ষতি ও ভাংচুর করে। এ ঘটনাটি বিভিন্ন পত্রপত্রিকায় প্রকাশিত হয়।

এর জের ধরে শুক্রবার জুমআর নামাজের আগমূহুর্তে বাড়িতে কোন পুরুষ লোক না থাকায় উক্ত ব্যক্তিরাসহ অজ্ঞাতনামা ১০/১২ জন ভাড়াটে সন্ত্রাসীরা হামলা করে অকথ্য ভাষায় গালিগালাজ করে।

এ সময় জিয়াউর রহমানের স্ত্রী তহুরা বেগম (৩৪) ও তার ভাই মজিবার রহমানের স্ত্রী সালমা বেগম (২৭) ঘর থেকে বাইরে এসে গালি গালাজ করতে নিষেধ করলে তাদেরকে এলোপাতাড়ীভাবে মারপিট করে। এক পর্যায়ে দু’জনকে উপরোক্ত ব্যক্তিরা উঠানে থাকা আম গাছে ও ঘরে পাকা পিলারের সাথে বেঁধে রাখে।

তাদের ডাকচিৎকারে জিয়াউর রহমানের বাবা বৃদ্ধ আব্দুল করিম গাইন (৬৫) ও তার মা খায়রুন নেছা (৬০) এগিয়ে গিয়ে ঠেকাতে গেলে তাদেরকেও মারপিট করে মারাত্মক আহত করে। পরে এলাকাবাসী ছুটে এসে আহতদের উদ্ধার করে কেশবপুর উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করে।

ঘটনা উল্লেখ করে জিয়াউর রহমান বাদী হয়ে উপরোক্ত ৪ ব্যক্তি ও অজ্ঞাতনামা ১০/১২ জনের বিরুদ্ধে থানায় একটি লিখিত অভিযোগ করেছেন। কেশবপুর থানার ডিউটি অফিসার এএসআই সোহেল রানা শনিবার সন্ধ্যায় অভিযোগ প্রাপ্তির বিষয়টি নিশ্চিত করছেন। ভিজিট করুন

অবৈধ ইটভাটা বন্ধ করে জরিমানা আদায়