মাদ্রাসা শিক্ষক প্রতিপক্ষের হুমকীর মুখে নিজের বাড়িতে যেতে পারছেন না : থানায় জিডি

জাতীয় খবর
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  

কেশবপুর মহিলা মাদ্রাসার শিক্ষক আব্দুল খালেক হয়রানিমূলক মামলায় আদালত থেকে জামিন নিলেও বাদী পক্ষের হুমকীর মুখে বাড়ি ঢুকতে পারছেন না। এ ঘটনায় শিক্ষক আব্দুল খালেক নিজের ও পরিবারের নিরাপত্তা রক্ষায় কেশবপুর থানায় জিডি করেছেন যার নম্বর ৪৭৯, তাং- ১২/০৯/২০।

কেশবপুর উপজেলার সফরাবাদ এলাকার মৃত আব্দুল মজিদ মোড়লের ছেলে কেশবপুর মহিলা মাদ্রাসার শিক্ষক আব্দুল খালেক জিডিতে উল্লেখ করেছেন যে, তার সাথে একই এলাকার মৃত মোহাম্মদ আলী মোড়লের ছেলে বজলুর রহমান, বজলুর রহমানের ছেলে পলাশ হোসেন, আব্দুল সাত্তারের ছেলে জামাল হোসেন ও কওছার আলী মোড়লের ছেলেদের সাথে বিভিন্ন বিষয় নিয়ে বিরোধ চলে আসছিলো। অভিযুক্তরা বিভিন্ন রকম হুমকীসহ গত ১২ সেপ্টেম্বর বিকাল ৫ টার দিকে বসত বাড়ির পাশে যাতায়াতের পথে আমার ও পরিবারের সদস্যদের উদ্দেশ্যে বিভিন্ন রকম অশ্লীল গালিগালাজসহ মিথ্যা মামলায় হয়রানি ও হত্যার হুমকী দেয়।

ওইদিন শিক্ষক আব্দুল খালেক কেশবপুর থানায় নিজের ও পরিবারের নিরাপত্তা চেয়ে কেশবপুর থানায় জিডি করেন। যার নম্বর ৪৭৯, তারিখ ১২/০৯/২০। শিক্ষক আব্দুল খালেক মোড়ল জানান, বজলুর রহমান তাদের নামে একটি মামলা করে গত ৭ সেপ্টেম্বর তারিখে। তাকেসহ তার পরিবারের ৪ জনসহ অজ্ঞাত নামা আরো ৪/৫ জনের নামে মামলা করে। ওই মামলায় তিনি বিজ্ঞ আদালত থেকে জামিনে আসেন। কিন্তু মামলার বাদী ও তার সঙ্গীরা অব্যাহত হুমকী দেয়ায় তিনি নিজ বাড়িতে যেতে পারছেন না বলে অভিযোগ করেছেন। – আব্দুল হাই সিদ্দিক।

Leave a Reply

Your email address will not be published.