যশোর বিমান বন্দর

আন্তর্জাতিক
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  

সাজেদ রহমান।। দ্বিতীয় বিশ্বযুদ্ধ চলে ১৯৩৯ সাল থেকে ১৯৪৫ সাল পর্যন্ত। বৃটিশ সরকার দ্বিতীয় বিশ্বযুদ্ধে জড়িয়ে পড়লে কলকাতা ও ঢাকার মধ্যবর্তী স্থানে তাদের একটি বিমান বন্দর দরকার হয়ে পড়ে। তাই ১৯৪২ সালে ব্রিটিশ সরকার যশোরে বিমান ঘাঁটি নির্মাণ কাজ শুরু করে।
মাত্র ছয় মাসের মধ্যে ব্রিটিশ বিমান বাহিনীর উপযোগী একটি বিমান বন্দর চালু হয়। ১৯৪৫ সালের সেপ্টেম্বর মাসে এই বিমান বন্দর থেকে একটি যুদ্ধ বিমান উড্ডায়নের পর পরই পাশে ছাতিয়ানতলা গ্রামে বিধ্বস্ত হয়। এতে দুই জন পাইলট নিহত হন।
ছাতিয়াতলা গ্রামের প্রবীন ব্যক্তি অধ্যাপক সাংবাদিক মসিউল আযম বলেন, আমার বয়স তখন দুই বছর। মায়ের কাছে শুনেছি, ‘ওই দিন আমি দোলনাতে শুয়ে ছিলাম। বিকট শব্দে বিমানটি গ্রামের মুন্সীতে বাঁশ বাগানে গিয়ে পড়ে। ভয়ে গ্রামের অনেকে পালিয়ে যায়। পাইলটরা বের হওয়ার চেষ্টা করে ছিলেন, কিন্তু দরজা এমন ভাবে ঢাকা পড়ে ছিল, তারা বের হতে পারেনি। তাতে আগুন ধরে যায়। মারা যায় পাইলটগন।
পরে বিমানের কিছু যন্ত্রাংশ নিয়ে যায় বিমান বাহিনীর কর্মকর্তারা। কিছু অংশ এখনও গ্রামে আছে। গ্রামবাসী তা সংরক্ষণ করে রেখেছে একটি মসজিদের পাশে।’

Leave a Reply

Your email address will not be published.