সালমান খান বন্যায় ক্ষতিগ্রস্ত খিদিরপুর গ্রামের উন্নয়ন করে দিয়েছেন

বিনোদন
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  

শুধুমাত্র বড় পর্দায় সিনেমা দিয়েই দর্শকনন্দিত নন, বলিউডের দাবাং খ্যাত অভিনেতা সালমান খান। অসহায় মানুষের পাশে দাঁড়ানোর জন্য বেশ সুনাম রয়েছে তার। তার নিজ প্রতিষ্ঠানের ‘বিং হিউম্যান-কে দেখা যায় সবসময় সামাজিক উন্নয়নমূলক কার্যক্রমের সঙ্গে যুক্ত থাকতে।

ঠিক তারই ধারাবাহিকতায় চলতি বছর ফেব্রুয়ারি মাসে টুইট করে সালমান জানিয়েছিলেন, ২০১৯ সালের বন্যায় ভেসে যাওয়া কোলহাপুর জেলার খিদিরপুর গ্রামের উন্নয়নমূলক কাজে আকাশ চোপড়ার এলান গ্রুপের সঙ্গে একসঙ্গে কাজ করবেন তিনি।

যেই কথা সেই কাজ, এলাকাটির সাংসদ রাজেন্দ্র পাটিল দিন কয়েক আগে একটি টুইট বার্তায় জানান, খিদিরপুর গ্রামের প্রায় ৭০টির মত ঘর আবারো তৈরি করা হয়েছে। রাস্তাঘাটসহ আরো সকল কিছুর উন্নয়ন কার্যক্রম প্রায় শেষের পথে। আর এই মহৎ কাজের সঙ্গে জড়িয়ে আছেন সালমান খান। সাংসদ রাজেন্দ্র এর জন্য বিশেষভাবে কৃতজ্ঞতা জ্ঞাপন করেছেন সালমান খানের প্রতি।

ভারতীয় গণমাধ্যমের সঙ্গে কথা বলে তিনি আরো জানান, প্রতিটি বাড়ি নতুন করে তৈরি করার জন্য প্রায় ৯৫ হাজার রুপি ব্যয় হয়েছে। যার পুরো খরচ বহন করেছেন সালমান খান এবং এলিন গ্রুপ।

গ্রামটির প্রধান হায়দার খান মোকশী জানান, ‘আমাদের গ্রামটি আবারও পুনরায় আগের অবস্থায় ফিরে আসছে। গ্রামবাসীদের মুখে এখন হাসি ফুটেছে। তারা আবার তাদের স্বাভাবিক জীবন-যাপনে ফিরে যাচ্ছে। আমরা আজীবন সালমানের কাছে কৃতজ্ঞ থাকব।’

প্রসঙ্গত, দীর্ঘদিনের লকডাউন পার করে এই মাসেই মুম্বাই ফিরেছেন সালমান খান। লকডাউন থেকে ফিরেই বেশ কড়া শিডিউলের মুখে তিনি। তিনটি সিনেমাসহ ‘বিগ বস’ নিয়ে আগামী মাসেই শুটিং শুরু করতে হচ্ছে তাকে।

Leave a Reply

Your email address will not be published.